ঈশ্বরদীতে অভিনব কায়দায় ইয়াবা পাচার ॥ মাদকসহ হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার

0
1075

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি ॥ দেশজুড়ে চলমান মাদক বিরোধী অভিযানের মধ্যেও চলছে মাদক পাচার, সরবরাহ। বসে নেই মাদক বিক্রেতারাও। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজর এড়াতে অভিনব কায়দায় ইয়াবা এনে ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে ঈশ্বরদীসহ সারা দেশে। আজ শনিবার (২ জুন) শহরের ফতেমোহাম্মদপুর এলাকা থেকে আমবাগান ফাঁড়ি পুলিশ একজন মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতারের পর বের হয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর এমন তথ্য। এই চক্রে জড়িত আছেন পাবনা জেলার কয়কেজন কুখ্যাত মাদক বিক্রেতা।
ঈশ্বরদী বাইপাস ষ্টেশনের শ্রীরামগাড়ি এলাকায় অবস্থান করছে ইয়াবা ব্যবসায়ি এমন খবরে শনিবার (২ জুন) সেখানে অভিযানে যায় পুলিশের একটি দল। বিপুল ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয় একজন। এসময় মাদক ব্যবসায়ির দুই হাতে স্কচটেপ ও ইলাষ্টিক রাবার দিয়ে মোড়ানো প্যাকেট ভর্তি এসব ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।
সাঁড়া ইউনিয়নের ইলসামারী গ্রামের মৃত হুজুর আলীর ছেলে আটককৃত ইয়াবা ব্যবসায়ি মিলন পাবনা থেকে এসব ইয়াবা এনে ঈশ্বরদী উপজেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ির কাছে সাপ্লাই করেন। আর তার তিন সহযোগি তা ছড়িয়ে দেয় ঈশ্বরদীর বিভিন্ন স্পটে। এমন অভিনব কায়দায় ইয়াবা পাচারের ঘটনা দেখে হতবাক হয়ে যান পুলিশের সদস্যরাও। আজ সকালে তাকে নিয়ে আসা হয় পুলিশ হেফাজতে। ইয়াবা ব্যবসায়ি মিলনের তথ্য মতে পাবনা শহর থেকে আরও একজনকে বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
আমবাগান পুলিশ ফাঁড়ির শহর পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) আবুল কালাম আজাদ বলেন, সোর্সের মাধ্যমে ইয়াবা ক্রয়ের কথা বলে মাদক ব্যবসায়ি মিলনের শরীরে অভিনব কৌশলে থাকা ৯’শ পিচ ইয়াবাসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। মিলন ঈশ্বরদী থানার হত্যা মামলার একজন আসামী। দির্ঘ দিন তিনি পাবনায় আত্মগোপন করে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িয়ে যান। মাদক বিরোধী চলমান অভিযানের কারণেই তারা এমন অভিনব কায়দা বেছে নিয়েছে বলেও ধারণা পুলিশের।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিম উদ্দিন বলেন, চলমান মাদক বিরোধী অভিযানের কারণে মাদক ব্যবসায়িরা অভিনয় কায়দায় মাদক পাচারের চেষ্টা করছেন। এই চক্রের সঙ্গে জড়িত বাকিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় ঈশ্বরদী থানার ওসি।

LEAVE A REPLY