‘উসকানিতে’ পা নয়, দলকে নির্দেশ কারাবন্দি খালেদার

0
85

ঢাকা প্রতিনিধি:ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে ভালো আছেন বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। তাঁর মনোবল শক্ত আছে। তিনি দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

আজ বুধবার বিকেলে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে বের হয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতারা খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করতে আজ বেলা সোয়া ৩টার দিকে কারাগারে প্রবেশ করেন। সোয়া এক ঘণ্টা সাক্ষাৎ শেষে তাঁরা বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে বের হয়ে আসেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা বিকেল ৩টা ১৫ মিনিটে তাঁর সাথে দেখা করার সুযোগ পাই। এ সময় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তিনি সাহসিকতার সাথে সব প্রতিকূল পরিবেশ মোকাবিলা করছেন। তিনি দেশের মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন, তাঁর জন্য দোয়া করতে। খালেদা জিয়া আপনাদের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানাতে বলেছেন, সবার শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে দেশে সত্য প্রতিষ্ঠিত হবে। আর তাই দেশ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে তিনি যেকোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত আছেন।

খালেদা জিয়া কেমন আছেন জানতে চাইলে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘তিনি (খালেদা জিয়া) অটুট আছেন। তাঁর শরীর ভালো আছে। দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য তিনি যেকোনো ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত রয়েছেন। শান্তিপূর্ণ অবস্থানকে তারাই ইচ্ছেকৃতভাবে অশান্তিপূর্ণ করার পাঁয়তারা করছে। দেশনেত্রী আমাদের সুনির্দিষ্টভাবে বলে দিয়েছেন সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণভাবে কারো উপসকানিতে পা না দিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে যাওয়ার জন্য তিনি আমাদের বলেছেন।’
মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় শান্তিপূর্ণ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। বিএনপি চেয়ারপারসন সবাইকে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে যেতে বলেছেন।

এর আগে দুপুর ১টায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাদের ১০ জনের একটি তালিকা কারা কর্তৃপক্ষের কাছে দেওয়া হয়। বিএনপি চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শামসুদ্দিন দিদার কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুর রহমানের কাছে এ তালিকা হস্তান্তর করেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে কারাগারে দেখা করতে যে নেতারা প্রবেশ করেন তাঁরা হলেন, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ড. আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং বিএনপির চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এ বি এম আবদুস সাত্তার।

এর আগে গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হয়। এরপর পুরান ঢাকার পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারকে বিশেষ কারাগার ঘোষণা দিয়ে খালেদা জিয়াকে সেখানে রাখা হয়।

আগামীকাল বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়ার কারাবাসের এক মাস পূর্ণ হচ্ছে। এর আগের দিন তাঁর সঙ্গে দেখা করতে গেলেন দলটির সিনিয়র নেতারা।

LEAVE A REPLY