ওপার বাংলার লেখক, কবি তমা বর্মণ এর ঈদ উপলক্ষে লেখা কবিতা ”একটি আলোর আত্মকথন ‘’

0
288
ওপার বাংলার লেখক, কবি তমা বর্মণ

একটি আলোর আত্মকথন

                                                   তমা বর্মণ

————————————-
মেয়েটি গতচাঁদ থেকে তুলসীবন,
কনফেসবক্স আর একটি নামাজ খুঁজছিল
সঞ্চয় করবে সেখানে সে মৃদু আলো!
হেঁটে হেঁটে ক্লান্ত দু-হাতে একটু পর পর
জিরিয়ে নিচ্ছিল একলা নিজেকে নিজের সাথে
প্রিয়মৃত্যুতে যেমন থাকে কান্নার বিহ্বলতা!
শ্বেতদ্রোন ফুলের রেণু লেগেছিল সিক্তবস্ত্রে যত,
অসীমতটরেখা প্রেমিকের অপলক চোখ
সীমান্ত অতিক্রম, জেনেছিল সে—
শোক ‘প্রেম আর যুদ্ধ’ এ-দুই মহাক্ষেত্র থেকে
পূর্বরূপ নিয়ে ফেরে না!
সমস্ত কালরাত্রি মানবিক দূতেরা মিলিতভাবে
এরজন্য অন্ধকারব্যুহ নির্মাণ করে চলেছে
হুহু করা বুকে মেয়েটি জড়িয়ে ধরে আকাশ,
সারাশরীর ধর্মবর্ণহীন যুদ্ধক্ষেত্র হয়ে ফুটে ওঠে!
কত কত নখে খুঁজবে প্রিয়তমদের লাশ!
চাঁদ হওয়া ছাড়া আর কোনো স্বপ্ন তার এখন নেই,
ঈদ নেই, পূজোপার্বণ নেই, বিদ্ধক্রুশ নেই
মহামারীর মত।
চাঁদ হাসে
চাঁদ ভাসে
ভালবাসে
ছুঁয়ে ছুঁয়ে দেখে ঈদের গোলাকাশ
গীর্জার গোল ঘন্টা
দূর্গাপ্রতিমামুখ!
জগদ্দলপাথর প্রিয়ার কাতরচোখ,
ঈদবাজার কোজাগরী আর ক্রুশবাজার হয়ে
মিলেমিশে মিছিলে হেঁটে চলে
চাঁদের আলো আর আত্মস্নানে

লেখক পরিচিতি : তমা বর্মণের জন্মস্থান ত্রিপুরা। পশ্চিমবঙ্গ কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষাবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন। প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ :
নির্জন কোলাহল প্রকাশিত গল্পগ্রন্থ : মৃত্তিকা মন বিশ্বাস: ভালোবাসাই আত্মশুদ্ধিকরণ

LEAVE A REPLY