কবি মিনু গরেট্টী কোড়াইয়া (বৃষ্টিরানী) এর ভিন্ন ধর্মী কবিতা ‘’ স্নেহের মাতৃসদন’’

0
68
কবি মিনু গরেট্টী কোড়াইয়া (বৃষ্টিরানী)

         স্নেহের মাতৃসদন

                               – মিনু গরেট্টী কোড়াইয়া (বৃষ্টিরানী)

তোমার হাত ধরে কত সবুজের পথে হেঁটেছি শৈশবে;
এখনও দুর্গম পথে তোমার স্পর্শ মেখে লই অনুভবে ।।
সতেজ রাখে আমায় তোমার শরীরে ঘামে ভেজা নির্মল ঘ্রাণ;
ছুটে আসি গভীর বেদনায় খুঁজি উদরের নিরাপদ অবস্থান। ।

কে রাখে ভুলায়ে আমার জাগ্রত সকল নিশি ?
বারবার মন্ত্রের মত জপি, মা তোমায় ভালোবাসি ।।
দিশেহারা হয়ে ছুটি দিগ্বিদিগ,
জীবন খেয়া আটকে থাকে কঠিন পাথরে ;
দু’হাত বাড়িয়ে টেনে লও তীরে,
আদরে লুকিয়ে রাখো জঠরে ।।

নিস্প্রভ হয় যখন প্রানবায়ু, সঙ্গে থাকেনা আর কেহ
তোমার কথা মনে ভাবি, দৈববাণীর মত বাড়ায় উৎসাহ।।
তুমি অনন্যা, আমার চোখে তুমিই মর্তের দেবী
প্রণত হই বারবার, মাগো তোমার চরণ সেবী ।।

তুমিই সকল নির্ভরতা, তুমিই আমার ভক্তিভাজন
উদিত হও সূর্যের মত, তুমি সকল কবিতার সৃজন ।।
তোমার হাসি হৃদয় আকাশে ফেলে তৃপ্তির ছায়া
বলো কে আছে জগত সংসারে, দেবে তোমার মত মায়া ।।

আজও সারি সারি স্বপ্নের শহরে তোমার হাত ধরে হাঁটি
তুমিই আমার ভুবন মোহিনী, তুমিই পরম খাটি ।।
আমার বুক জুড়ে গড়েছি আজ, স্নেহের মাতৃসদন
গর্বে অহংকারে ভরে থাক মা, তোমার মিষ্টি বদন।।

লেখক পরিচিতিঃ মিনু গরেট্টী কোড়াইয়া ১৯৭১ সালে ৭ ফেব্রুয়ারি নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম থানার ভবানীপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মায়ের অনুপ্রেরণায় তিনি ছোটবেলা থেকেই শিল্প সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চা শুরু করেন। স্কুল জীবনে তার লেখা অনেক ছড়া, কবিতা, ছোটগল্প সাপ্তাহিক পত্রিকা প্রতিবেশি ও অন্যান্য সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়। বাণীদিপ্তী ও শান্তির বাণীর তিনি একজন গীতিকারও ছিলেন। অতিমাত্রায় সাংসারিক ব্যস্ততা এবং অনেকটা অভিমানেই তিনি প্রায় বিশ বছর যাবৎ লেখালেখির জগত থেকে দূরে সরে ছিলেন। অবশেষে ২০ বছর পর ২০১৫ সাল থেকে তিনি কলম হাতে তুলে নেন এবং বৃষ্টি রানী ছদ্মনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পুনরায় কবিতা লেখা শুরু করেন। ডিসেম্বর ২০১৬ এ প্রকাশিত হয় তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ “বৃষ্টিকাব্য ১” । ২০১৭ সালের ২১শে বইমেলায় শিশু কিশোরদের জন্য তার লেখা ছড়ার বই “বৃষ্টির ছড়া” প্রকাশিত হয়। এবারের কাব্যগ্রন্থ “বৃষ্টিকাব্য ২” এ মানুষের মনের আবেগ, অনুভূতি, প্রেম, ভালবাসা, বিরহ, নির্যাজিত নারীদের কথা, সমসাময়িক সামাজিক বাস্তবতা ইত্যাদি বিষয় সহজ ভাষা ও ছন্দে ফুটে উঠেছে। এ বছর তার বৃষ্টিকাব্য (দুই) নামে নতুন কাব্যগ্রন্থ বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে।
বৃষ্টি রানী সকলের ভালবাসা, আশীর্বাদ ও অনুপ্রেরণায় সকল বাঁধা পাড় হয়ে আরো এগিয়ে যাবার প্রত্যাশা করে।

LEAVE A REPLY