জেফ বেজোস এখন সর্বকালের সেরা ধনী ব্যক্তি।

0
110

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোমবার ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রধান নির্বাহীর সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১০৫ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলারে। আর এটি জানাচ্ছে আর্থিক প্রতিষ্ঠান ব্লুমবার্গের বিলিনিওয়র ট্রাকার। এর মধ্য দিয়ে তিনি মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসকে টপকে গেলেন।

বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের খবর রাখে এমন পত্রিকা ফোর্বেসের মতে অবশ্য বেজোসের সম্পদের পরিমাণ কিছুটা কম। তারা বলছে, তার সম্পদের পরিমাণ ১০৪ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার।

তবে বেজোসের এই সম্পদের সিংহভাগই এসেছে মূলত অ্যামাজনের শেয়ার থেকে। প্রতিষ্ঠানটিতে তার ৭৮ দশমিক ৯ মিলিয়ন শেয়ার রয়েছে। সোমবার ওই শেয়ারের দাম ১ দশমিক ৪ ভাগ বৃদ্ধি পায়। ফলে বেজোসের অ্যাকাউন্টে জমা পড়ে ১ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলার।

চলতি বছরে অ্যামাজনের শেয়ার প্রায় ৭ শতাংশ বেড়েছে। যেটা গত বছর ৫৬ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছিল।
অ্যামাজনের শেয়ার ছাড়াও বেজোসের মালিকানায় রয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট ও মহাকাশ ভ্রমণ প্রতিষ্ঠান ব্লু অরিজিন।

গেলো বছরের জুলাইয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বের শীর্ষ ধনী হিসেবে বিল গেটসকে টপকে যান বেজোস। পরে অক্টোবরেও আরেক বার ছাড়িয়ে যান মাইক্রোসফটকে।

মার্কিন সাময়িকী ফোর্বসের তথ্যে বিল গেটসের সম্পদের পরিমাণ এখন ৯১ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলার। আর ব্লুমবার্গের মতে, গেটসের সম্পদের পরিমাণ ৯৩ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার।

তবে ফোর্বস জানাচ্ছে, ১৯৯৯ সালের এপ্রিলে কিছু সময়ের জন্য বিল গেটসের সম্পদের পরিমাণ ১০০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যায়।

তারপরও এখনো বেজোসের চেয়ে বেশি সম্পদের মালিক থাকতেন গেটস। কিন্তু দাতব্য কাজের অর্থ ব্যয়ের কারণে গেটসের সম্পদের পরিমাণ বেজোসের চেয়ে কম।

ব্লুমবার্গ বলছে, গেটসের প্রকাশ্য দানের তথ্য বিশ্লেষণে দেখা যাচ্ছে তিনি মাইক্রোসফটের ৭শ মিলিয়ন শেয়ার দিয়ে দিয়েছেন। যার বর্তমান বাজার মূল্য ৬১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার। যেটি টাকার হিসাবে ২ দশমিক ৯ বিলিয়ন ডলারের সমপরিমাণ। ফলে সে হিসাবে বিল গেটসের সম্পদের পরিমাণ এখন হতো ১৫০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে।

LEAVE A REPLY