ধানমণ্ডিতে শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা

0
30

ঢাকা প্রতিনিধি: রাজধানীর ধানমণ্ডিতে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে।

আজ শনিবার সকাল থেকেই সায়েন্স ল্যাব, ঢাকা কলেজ এলাকা এবং জিগাতলা ও আশপাশের রাস্তায় অবস্থান নেয় শিক্ষার্থীরা। তারা রাস্তার শৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি গাড়ির কাগজপত্র চেক করছিলো। দুপুরে হঠাৎ তাদের ওপর হামলা করে একদল বহিরাগত। প্রথমে ধস্তাধস্তি ও শিক্ষার্থীদের পিটিয়ে আহত করে হামলাকারীরা।

এ সময় বেশ কয়েকজন ছাত্র গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করে আশপাশের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

আন্দোলরত ছাত্রদের দাবি, তাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে হঠাৎ করেই হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী বলেও দাবি তাদের।

এ বিষয়ে ধানমণ্ডি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাৎক্ষণিকভাবে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে আছি, পরে কথা বলব।’

ধানমণ্ডি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজান জানান, দুপুর পৌনে ২টার দিকে সংঘর্ষ হয়েছে। তবে কারা হামলা করেছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজ রাজধানীর শাহবাগ, ফার্মগেট, পান্থপথ, আসাদগেট, সায়েন্স ল্যাব, মিরপুর, মতিঝিল, শনির আখড়া প্রভৃতি স্থানে শিক্ষার্থীরা অবস্থান নেয়।

গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ছাড়া আহত হয় বেশ কয়েকজন। নিহত শিক্ষার্থীরা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এরই মধ্যে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন। নৌমন্ত্রী শাজাহান খানের পক্ষ থেকেও পাঁচ লাখ টাকা করে দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে শিক্ষার্থীরা। এরপর থেকে ঢাকার অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোয় বাস চলাচল একেবারেই কমে যায়। এমনকি আন্তজেলা বাস চলাচলও বন্ধ হয়ে যায়।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ৯টি দাবি করেছে। তাদের সব দাবি মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালও বলেছেন, শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। এখন তাদের ক্লাসে ফিরে যাওয়ার উচিত বলে জানান তিনি।

এরই মধ্যে গণপরিবহন মালিক-শ্রমিক সমিতির নেতারা বলেছেন, নিরাপদ বোধ না করা পর্যন্ত তারা রাস্তায় বাস নামাবেন না। ফলে অঘোষিত ধর্মঘট চলছে। গতকাল থেকেই আন্তজেলা বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

LEAVE A REPLY