নিরপেক্ষতা নিয়েই উঠল প্রশ্ন, কমিশনকে তীব্র ভর্ৎসনা কোর্টের

0
32

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা নিয়ে দায়ের হওয়া মামলার শুনানি শুক্রবার হল না। তবে, এ দিনই প্রদেশ কংগ্রেসের দায়ের করা মামলায় রাজ্য নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে তাকে কার্যত তুলোধোনা করেছে হাইকোর্টের বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার ও বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ।

রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে কোনও নির্দেশ না দিলেও বিচারপতি সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চ এ দিন তার পর্যবেক্ষণে বলেছে, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে কমিশন তার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা পালনে ব্যর্থ হয়েছে। পঞ্চায়েত ভোটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর থেকে নির্বাচন কমিশন বার বার এমন সব কাজ করেছে, যাতে তার দিকে অভিযোগের আঙুল উঠতে বাধ্য। স্বচ্ছতার সঙ্গে নিজের কাজ করতে গিয়ে নাকানিচোবানি খেয়েছে কমিশন। তার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কেন তিন দিনের বদলে এক দিনে ভোট করা হচ্ছে, সেই ব্যাখ্যাও কমিশন দেয়নি।

কেন নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দেওয়া হল না, তার ব্যাখ্যা দিয়ে বিচারপতি সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চ এ দিন বলেছে, নির্বাচন প্রক্রিয়া চালু হয়ে গেলে আদালত তাতে হস্তক্ষেপ করা থেকে বিরত থাকতে চায়। তবে একই সঙ্গে আদালতের মন্তব্য, কমিশন যা খুশি তা-ই করবে এবং তা নিয়ে কোনও প্রশ্ন তোলা যাবে না, ব্যাপারটি এমনও নয়। তা হলে বিচারব্যবস্থাই হাসির খোরাক হয়ে উঠবে। উপযুক্ত ক্ষেত্রে আদালত সর্বদাই হস্তক্ষেপ করতে পারে।

ডিভিশন বেঞ্চের এ দিনের পর্যবেক্ষণকে সতর্কবার্তা (ওয়েক আপ কল) হিসেবে দেখতে বলা হয়েছে কমিশনকে। আদালত আরও বলেছে, এ দিনের রায়ে যে সব পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে, তা নির্বাচনী প্রচারের কাজে লাগানো যাবে না।

ই-মেলে মনোনয়ন পেশের দাবিতে সিপিএমের দায়ের করা আরও একটি মামলা চলছে বিচাপতি সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চে। এ দিন সেই মামলার শুনানি শেষ হয়নি। ফলে প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে পঞ্চায়েত ভোটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত মামলারও শুনানিও হয়নি এ দিন। প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, বিচারপতি সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চ মনোনয়ন সংক্রান্ত মামলায় কী নির্দেশ দেয় তা দেখে আগামী ৮ তারিখ নিরাপত্তা সংক্রান্ত মামলাটি শোনা হবে।

LEAVE A REPLY