প্রতিভা সন্ধান কাব্য পরিষদ এর ১০/৮/১৮ তারিখের সেরা লেখা কবি বাবুল হোসেন বাবলু এর কবিতা “ চিরন্তন পদ্য ”

0
42

চিরন্তন
পদ্য
বাবুল হোসেন বাবলু

যমদূত আসে কি ঘোষণা দিয়ে –
যখন তখন পালায় প্রাণটা নিয়ে ।

অবোধ আমরা মূর্খ বুঝি কি তায়-
যার আছে সে অারো আরো চায় ।

বিত্তের কাড়াকাড়ি নিত্য রাতদিন –
মহারণে মানবতা অদৃশ্যে বিলীন ।

শোষণের যাঁতাকলে পিষ্ট শোষিত –
দুর্বলের রক্তস্রোতে ধরাধাম রঞ্জিত ।

বৈভবের অন্ধমোহে দৃৃষ্টি আঁধারে –
ক্ষণের ধরা জেনেও ব্যস্ত ব্যভিচারে ।

আমার তোমার বিভাজন রেখা –
অন্তে বিদায় মাটির গহ্বরে একা ।

ক ফোঁটা অশ্রু ঝরায় স্বজন সকল –
সজ্জিত মহল রক্ষিত অর্জন বিফল।

হয় না চেতনা বিলুপ্ত জ্ঞান হুঁশ –
মনুষ্যত্বহীন শুধু নামের মানুষ ।
.
দিনে দিনে বাড়ে ঋণের বোঝ-
ক’জনা রাখে নিরন্নের খোঁজ?
.
পার্থিব লোভের জালে বন্দি সবে –
ফূর্তির স্রোতে ভাসে ক্ষণের ভবে ।
.
স্থায়ী আবাস মাটির বন্ধ অন্ধ ঘরে –
হিংসা কেন ভাই তবে পরের তরে ?
.
নিভিয়ে দাও দ্রোহের তপ্ত রোষানল –
বন্ধ করো ছলনার চাতু্রে ছলাকল ।
.
যতদিন দেহের মাঝে রবে প্রাণ –
একে অপরে দিও প্রাপ্য সন্মান ।
.
কত সাধের প্রাণ লালন যতনে-
পরিণত অবশেষে কীটের ভোজনে ।
.
অযতনে পড়ে দেহটা গৃহকোণে –
স্বজন দূরে রয় বিবর্ণ মুখ দর্শনে ।
.
সময়ে চেতনার দীপ জ্বালো মহাজন –
স্মরণ রাখিও সদায় মরণ যে চিরন্তন ।

LEAVE A REPLY