প্রতিভা সন্ধান কাব্য পরিষদ এ ১৮.০৩.২০১৮ তারিখের সেরা কবিতা সাইফুল ইসলাম সাগর এর “ ভাঙা বাড়ির নিমন্ত্রন”

0
118

ভাঙা বাড়ির নিমন্ত্রন

সাইফুল ইসলাম সাগর

———————————
পুরুনো অভ্যাসটা বদলাইনি আজো
সেই রুপকথার কাহিনীর মত শুনি তোমার কথার ঝুলি।
কখনো কি পূর্ণিমার চাঁদ দেখার ভাগ্য হয়েছিল তোমার?
জানি,হয়নি।
আমার এই ঘরটিতে শু’লে দেখতে।
আয়োজন করে বাহিরে যেতে
হয়না,আদুল গায়ে বিছানার
একপাশে চোখ দু’টো যখন মেলে
দিবে উর্ধ্বপানে দেখবে কত তারা আর চাঁদের
লুকোচুরি।
শুন,এখানেও ঘুম হয়,মাঝ রাতে স্বপ্ন দেখে।
শুধু এতটুকু ব্যবধান ছাঁদ আর খঁড়ের চাল।
প্রকৃতির মনোরম শোভা এখানেই পাবে
এক পাশে তোমার ঝিঁঝিঁ পোকা অন্য পাশে
জোনাকিরা আলোর মিছিল করে।
ভাঙা চকি,ছেঁড়া বিছনা,তেলতেলে বালিশ
তবুও সুখের মেলা বসে রাতে।
জানো,
কখনো কখনো রাত দুপুরে পঙ্খীরাজে ভালবাসা আসে।
ঘুমের ঘরে তোমাকে প্রেম নগর দেখাবে।
সত্যি মুগ্ধকর এক রাত নামে এই অধমের ভাঙা ঘরে।
তিমির রজনী কেটে আবার সূর্যও ওঠে ভোরে।
এই শুনো,আসবে?
এই হতভাগার ছোট্ট কুঁড়েঘরে।
ভাঙা হলেও চাল আছে তবে চাউনিটা নেই।
এখানে মানুষ থাকে,আমার মতো অধমও থাকে।
শুধু বৃ্ষ্টি হলে ফোঁটাগুলো বাহিরে পড়েনা।
চাঁদের সাথে কথা বলে রাত পুহাবে।
বিছানা থেকে সুদূর
তারকারাজি গুনার ভাগ্য
ক’জনের হয় বলো?
এখানে আসলেই পারবে।
জানো,সেই চকিটা আগের মত নেই এখন
বনের কাঁঠে শুক্ত জোড়াতালি দিছি।
একটা বসার চেয়ারও আছে তার পাশে।
আসবে?
আমার এই ভাঙা কুঁঠিরে।
তোমার তো আবার কাঁথা মুড়িয়ে ঘুম হয়না
তাতে কি,
বিলাত থেকে একটা কম্বলও কিনেছি।
জীবনের সব বিসর্জন দেব যদি আসো।
ভাঙ্গা হলেও বাতাস ঢুকেনা শীতে
গ্রীষ্মের রাতে পাখাও চলে রুমে।
ভেবে দেখো,আসবে কিনা।
না আসলে অতটুকু দুঃখ নেই।
যেখানে থেকো,যেভাবে থেকো
শুধুই ভাল থেকো,ভাল থেকো।

LEAVE A REPLY