ফরিদপুরে বাসায় কলেজ শিক্ষিকা ও ব্যাংক কর্মকর্তার লাশ

0
22

ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুর শহরের দক্ষিণ ঝিলটুলীর একটি ফ্ল্যাট থেকে এক কলেজ শিক্ষিকার লাশ ও এক ব্যাংক কর্মকর্তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার রাত ১১টায় ওই বাসা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফরিদপুর কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ দৈনিক আলাপকে বলেন, ফরিদপুরের ঝিলটুলি এলাকায় একটি আবাসিক ভবেনের নিচতলার ফ্ল্যাট বাসায় ভাড়া থাকতেন ফরিদপুর সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক সানজিদা বেগম। পাশের ফ্ল্যাটেই থাকতেন ফরিদপুর সোনালী ব্যাংকের নিরীক্ষা বিভাগের কর্মকর্তা ফারুক হাসান। রোববার সন্ধ্যায় ফারুক হাসানের ফ্ল্যাট থেকে ব্যাংক কর্মকর্তার ঝুলন্ত লাশ এবং বাসার মেঝে থেকে সানজিদা বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

বাড়ির মালিক বলেন, আমি বাসার গেট লাগাতে গিয়ে তার মরদেহ ঝুলতে দেখি। এরপর আমি থানায় গিয়ে পুলিশকে বিষয়টি জানাই।

নিহতের এক প্রতিবেশী বলেন, আমি কখনোই তাকে বাসায় দেখিনি। সবসময় দরজা বন্ধ থাকত।

এদিকে কলেজ শেষে বিকেলে বাড়ি ফেরার কথা থাকলেও কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না বলে জানান সানজিদা বেগমের স্বামী মো. মহিদুল ইসলাম।

খবর শুনে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন সানজিদা বেগমের সহকর্মীরা। তারা বলেন, তিনি অনেক ভালো মানুষ ছিলেন। সকলের সঙ্গেই তার ভালো সম্পর্ক ছিল। এই ঘটনা কেন ঘটল তা আমরা আঁচ করতে পারছি না।

তবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা সে রহস্য উন্মোচনে ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা।

LEAVE A REPLY