যশোরের বিএনপির ৯৭ জন শীর্ষ নেতাকর্মির জামিন না মন্জুর,জেল হাজতে প্রেরণ

0
98

মীর ফারুক শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি ঃ যশোর জেলা বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের ৯৭ জন নেতাকর্মির জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে আদালত।যশোরের বিভিন্ন থানায় পৃথক পৃথক বোমা বিস্ফোরক ও নাশকতার মামলায় যশোর জেলা আদালতে বিএনপির শীর্ষ ৯৭ জন নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক ভাবে জামিনের আবেদন করে, আদালত শুনানি শেষে সব মামলায় একই আদেশ দেয়।
জামিন না মনন্জুর হওয়া নেতৃবৃন্দরা হলো জেলা যুবদলেন ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক এম তমালসহ যশোর সদর থানা ১৪জন,শার্শা থানা সভাপতি আলহাজ্ব খায়রুজ্জামান মধু সহ ০৮ জন,বেনাপোল পোর্ট থানা কেন্দ্রীয় যুবদলে সাবেক সদস্য,বাংলাভিশন এর সাংবাদিক আলহাজ্ব নুরুজ্জামান লিটন সহ ২১ জন ,চৌগাছা থানা বিএনপির সভাপতি মো: জহিরুল ইসলাম সহ ১১জন,অভয়নগর থানা বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের ৪৩ জন নেতাকর্মি।যশোর জেলা বিএনপির ৯৭জন নেতাকর্মি সবাই হাইকোর্ট থেকে অগ্রিম জামিনে ছিলেন,
২০ ই মার্চ মঙ্গলবার বিএনপির নেতাকর্মিদের হাইকোর্ট এর দেওয়া অগ্রিম জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়া তারা সবাই যশোর জেলা জজ আদালতে পৃথক ভাবে স্থায়ী জামিনের জন্য আবেদন করে, আদালত সব মামলায় শুনানি শেষে এই আদেশ দেয়

বিএনপির সুত্রে জানা যায় বিএনপির চেয়ারপার্সন,সাবেক প্রধানমন্ত্রী,বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফারেনজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় কে কেন্দ্র করে করে ১ লা ফেব্রুয়ারি ১৮ রাতে পুলিশ পুরো যশোর জেলায় অভিযান চালিয়ে বিএনপির বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মিকে আটক করে, এবং বিএনপির শীর্ষ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ সহ কয়েকশ নেতাকর্মির না উল্লেখ করে বোমা বিস্ফোরক আইনে ও নাশকতার অভিযোগে বিভিন্ন থানায় ১২ থেকে ১৪ মামলা দায়ের করে পুলিশ,মামলায় বিএনপির নেতৃবৃন্দ হাইকোর্ট অগ্রিম জামিন আবেদন করলে হাইকোর্ট সবাইকে ০৪ সপ্তাহের অস্থায়ী জামিন মন্জুর করে,হাইকোর্টের অগ্রিম জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়া তারা সবাই মঙ্গলবার যশোর জেলা জজ আদালতে স্থায়ী জামিনের আবেদন করে,আদালত শুনানি শেষ সব আসামীর জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দেয়।

জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু বলেন পুলিশের মিথ্যা নাশকতা মামলায় আজ আমাদের ৯৭ জন নেতাকর্মি জেলা জজ এর নিকট জামিনের আবেদন করে, আদালত সকল নেতাকর্মির জামিন বাতিল করে জেল হাজতে পাঠানো আদেশ দিয়েছে।সরকার আমাদের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে আটক রেখে যত দমননীতি চালাবে বিএনপি ততো এক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী হবে, হামলা মামলা নির্যাতন করে বিএনপিকে ধ্বংস করা যাবে না।

LEAVE A REPLY