যশোর জেলা তরুন লীগ নেতা বোমা হামলায় নিহত,আহত ১

0
62

মীর ফারুক শার্শা যশোর প্রতিনিধিঃ মৃত্যপুরী খ্যাত যশোরে দলীয় গ্রুপিং কারনে আরেকটি জীবন প্রদীপ নিভে গেলো,দলীয় গ্রুপিং এর কারনে বোমা হামলা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে যশোর জেলা তরুন লীগেরর সাংগঠিনক সম্পাদক মনিরুল ইসলামকে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা।বোমা হামলায় গুরুতর আহত হয় সন্তোষ ঘোষ , তার অবস্থা আশংকা জনক বলে জানান চিকিংসকরা,বোমা হামলায় নিহত হওয়া যশোরে আওয়ামীলীগের বিদ্যমান দুটি গ্রুপে মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে যশোরে আওয়ামী লীগ এর বিদ্যমান দুই গ্রুপ বোমা হামলার নিহত প্রতিবাদে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন।

১২ ই মে শনিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১২ টায় সময় পালবাড়ী মোড়ে বোমা হামলার নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটে,

নিহত জেলা তরুন লীগের সাংগঠিনক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম পুলিশ লাইন টালীখোলা এলাকার বজলুর রহমান এর ছেলে,আহত সন্তোষ ঘোষ পুরাতন কসবা ঘোষ পাড়া এলাকার নারায়ন ঘোষের ছেলে বলে জানা যায়।

স্থায়ীরা সুত্রে জানা যায় শনিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১২ টায় সময় মনিরুল ও সন্তোষ পালবাড়ী মোড়ে দাড়িয়ে কথা বলছি,এই সময় ২/৩ মটরসাইকেল করে ৭/৮ জন সন্ত্রাসী এসে তাদেরকে লক্ষ্য করে ৬ টি বোমা হামলা করে,বোমা মনিরুলের মাথাসহ শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়ে যায়,এর সন্ত্রাসী রা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ফেলে রেখে চলে যায়,স্থানীয়া তাদেকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়,পথে মধ্য মনিরুল মৃত্যবরণ করে,আহত সন্তোষ চিকিংসাধীন আছে।
নিহত মনিরুল এর ভাই শাহরিয়ার বলেন কিছুদিন আগে আমি এই এলাকায় একটি জমি ক্রয় করি,জমি ক্রয় করার পর মোস্তফা ওরফে (মোস্তফা) আমার কাছে চাঁদা দাবী করে,কিন্তু আমি চাঁদার টাকা না দেওয়া কয়েক দিন আগে আমার উপরও বোমা হামলা হয়েছিলো,

বোমা হামলা নিহত হওয়া বিষয়ে এই রিপোট লেখা পর্যন্ত থানা কোন হত্যা মামলা রুজূ হয়নি বলে জানান কোতোয়ালি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা (ওসি)আজমল হুদা,তিনি আরো বলেন বোমা হামলাকারীদের পরিচয় জানান চেষ্টায় কাজ করছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY