যুদ্ধাপরাধে মৌলভীবাজারের ৪ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ

0
23

দৈনিক আলাপ ওয়েবডেস্ক:‌ মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৌলভীবাজারের রাজনগরের মো. আকমল আলী তালুকদারসহ চারজনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল আজ মঙ্গলবার এ রায় ঘোষণা করে। এটি মুক্তিযুদ্ধকালীন মানবতাবিরোধী অপরাধ তথা যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে আনা মামলায় ৩৩ তম রায়। রায়ে বলা হয়, আসামিদের বিষয়ে আনা দুটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে একটিতে সব আসামিকেই মৃত্যুদণ্ড এবং অপরটিতে সবাইকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

এ মামলায় গত ২৭ মার্চ যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে মামলাটি রায় ঘোষণার জন্য অপেক্ষামান রাখা হয়। আজ রায় ঘোষণার বিষয়ে কাল দিন ধার্য করে আদেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।

মো. আকমল আলী তালুকদার (৭৯) ছাড়া মামলার অন্য আসামিরা হলেন- মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার আব্দুর নুর তালুকদার ওরফে লাল মিয়া (৬২), মো. আনিছ মিয়া (৭৬) ও মো. আব্দুল মোছাব্বির মিয়া। আকমল আলী ছাড়া বাকিরা পলাতক রয়েছেন।

আজ রায়ে,পলাতক তিন আসামিকে গ্রেফতার করে সাজা কার্যকর করতে সংশ্লিষ্টদের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

২০১৬ সালের ৩০ মে এই চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেয় ট্রাইব্যুনাল। একই বছরের ২৩ মার্চ তাদের বিষয়ে তদন্তের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন প্রকাশ করে তদন্ত সংস্থা। এর আগে ২০১৫ সালের ২৬ নভেম্বর চার আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে ট্রাইব্যুনাল। ওই দিনই জেলার রাজনগর উপজেলার পাঁচগাঁও গ্রাম থেকে আকমল আলীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ আসামি মৌলভীবাজার টাউন সিনিয়র কামিল মাদ্রাসার অবসরপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ।

এছাড়াও একটি মামলায় গত ৩০ মে পটুয়াখালীর ৫ আসামির বিষয়ে যুক্তিতর্ক শেষে যে কোনো দিন রায় (সিএভি) ঘোষণা করবে বলে আদেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল। এটি হবে যুদ্ধাপরাধের মামলায় ৩৪ তম রায়। ২০১৭ সালের ৮ মার্চ এ আসামিদের বিষয়ে অভিযোগ গঠন করা হয়। আসামীদের সর্বোচ্চ সাজার আর্জি পেশ করে শুনানি করে প্রসিকিউশন। ২০১৫ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ট্রাইব্যুনাল এই ৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে। পরোয়ানা জারির পর ৫ জনকেই গ্রেফতার করা হয়। বাসস

LEAVE A REPLY