রাসিক নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিয়ে মেয়র বুলবুলের সংশয়!!

0
43

রাজশাহী প্রতিনিধি: মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেছেন, ‘গতরাতেও (বুধবার) রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়রের ৮০টি ফেস্টুন উধাও করে দেওয়া হয়েছে। পরে সেখানে সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের ফেস্টুন টাঙানো হয়েছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আসন্ন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবো কী না তা নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হয়েছে!’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের এ্যানেক্স সভাকক্ষে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ এবং অর্থ সংস্থাপন স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, সচিব ও প্রধান প্রকৌশলীসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী ও রাজশাহীতে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

মেয়র আরও বলেন, ভোটকেন্দ্রে যদি জনগণকে নিরাপত্তা দিতে পারি তাহলে নির্বাচন করবো, অন্যথায় নির্বাচন করবো না। ১৯৯৬ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত রাজশাহীর মানুষকে সম্মানিত করা হয়েছে। কিন্তু ২০১৩ সালের পর সরকার রাজশাহীর মানুষের সম্মান কেড়ে নিয়েছে। এ কারণে ১৩ মাস আমি সিটি করপোরেশনের গাড়ি পরিহার করেছি। এ সময়ে আমি রিকসা ও মোটরসাইকেলে করে অফিস করেছি। পরবর্তীতে করপোরেশনের স্বার্থে এবং কর্মকর্তাদের অনুরোধে শুধুমাত্র অফিসের কাজে করপোরেশনের গাড়ি ব্যবহার করেছি। আমার পরিবারের সদস্যরা কেউ কখনো করপোরেশনের গাড়িতে চড়ে দেখেনি। অর্থ প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও আমরা বঞ্চিত হয়েছি।’

রাসিক মেয়র বলেন, আমি মোট ২৬ মাস মেয়রের দায়িত্ব পালন করেছি। এরমধ্যে প্রথম ১৩ মাস দায়িত্ব পালন করেছি। এরপর রাজনৈতিক মিথ্যা মামলায় আত্মগোপনে ও কারাগারে ছিলাম। তারপর ১৩ মাস ধরে দায়িত্ব পালন করছি। সবমিলিয়ে মোট তিনটি বাজেট দিতে পেরেছি। বাকী সময় অনির্বাচিত একজনকে দিয়ে জোরপূর্বক মেয়রের দায়িত্ব পালন করানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY